সনেট ৭৩: That time of year thou mayst in me behold…

William-Shakespeare-portrait-by-unknown-630x310

য়ত দেখেছো তুমি 

আমার হেমন্ত বেলা:

কিছু বিবর্ণ পাতা,

শুকনো, শীতার্ত ডাল পালা

কাল-ও তো ছিল পাখি,

কাল-ও তো ছিল তার গান?

হেমন্তের শেষসন্ধ্যা, সেখানেই আমি:

সূর্যের ওপাশে,পশ্চিমে, তারার আঁধারে ;

একটু আলোর ছোঁয়া উষ্ণ চিতায় — 

বাসনার শেষ পংক্তি !

এতটা শেখার পর আর কোনো মোক্ষ নেই ,

ধ্রুবতর সত্য নেই আর–

একবার শেষবার 

অন্তিম ভালবাসা ছাড়া

Image:  http://www.thestage.co.uk/wp-content/uploads/2008/06/William-Shakespeare-portrait-by-unknown-630×310.jpg

Advertisements

About purnachowdhury

I am a person of and for ideas. They let me breathe.
This entry was posted in কবিতা, বাংলা and tagged . Bookmark the permalink.

7 Responses to সনেট ৭৩: That time of year thou mayst in me behold…

  1. Pingback: সনেট ৭৩: That time of year thou mayst in me behold… | Methinks…

  2. দারুন লিখেছেন!
    শুভেচ্ছা রইলো কবি।

  3. আজ একটু সমালোচনা করি, যদি অনুমতি করেন। আপনি অবশ্য সনেট লেখেন নি, ওটা সাহেব লিখেছিলেন। আপনি আপনার নিজের মত রূপ দিলেন, সনেটের নিয়মাবলীর কোনও ধার ধারলেন না। আর আমার মত এক অতিরিক্ত আশাবাদী বৃদ্ধ অনেকক্ষণ ধরে মাথা চুলকাল। ১৪ টি লাইন আছে ঠিকই আর এও অন্তিম সত্য যে বাঙলাতে iambic pentemeter -এর জায়গা নেই। হাজার হলেও বাঙলা তো আর accent – এর ধার ধারে না। বেশি দূর যেতে হবে না, কাউকে ধরে economics শব্দটা উচ্চারণ করতে বলবেন। দেখবেন কত বিচিত্র সমস্ত সম্ভাবনা। সে যাই হোক, আপনার অসাধারণ ক্ষমতা কিন্তু আপনি একটু আধটু প্রয়োগের চেষ্টা করে দেখতে পারতেন। একটু সুধীন দত্ত আওড়াই।

    Shall I compare thee to a summer’s day?

    বসন্ত দিনের সনে করিব কি তোমার তুলনা?
    তুমি আরও কমনীয়, আরও স্নিগ্ধ, নম্র, সুকুমার
    কালবৈশাখীতে টুটে মাধবের বিকচ কল্পনা,
    ঋতুরাজ ক্ষীণপ্রাণ, অপ্রতিষ্ঠ যৌবরাজ্য তার।
    অলোকের বিলোচন কখনও বা জ্বলে রুদ্র তাপে
    কখনও সন্নত বাষ্পে হিরণ্ময় অতিশয় ম্লান;
    প্রাকৃত বিকারে, কিংবা নিয়তির গূঢ় অভিশাপে
    অসংসবৃত অধঃপাতে সুন্দরের অমোঘ প্রস্থান।

    ইত্যাদি, ইত্যাদি, …

    অবশ্যই আপরার পাঁঠা আপনি মুড়োয় কাটবেন কী লেজে কাটবেন সে তো আপনার নিজের সিদ্ধান্ত। তবে, ঐ সনেটের ab, ab, ab, ab, ab, ab, cc -টা দেখতে বড় সুন্দর। ab, ba – ও হতে পারে বলাই বাহুল্য। প্রমথ চৌধুরী অবশ্য বাংলায় সনেট লিখেছিলেন। তার অন্ত্যমিল আরও অন্যরকম।

    একটা সমস্যা অবশ্যই থাকে। আপনি যদি এই ঢঙটা বজায় রাখতেন, তবে আবার কোন নিন্দুক বলে বসত — আরে এই মেমসাহেব তো সুধীন দত্ত থেকে টুকে দিলেন। আর তেমন নিন্দুক যে এ জগতে থাকবে না এমন আশ্বাস আপনাকে কে দেবে? সুধীন বাবু তো বেশ কয়েকটা শেক্সপীয়রের সনেট অনুবাদ করেছিলেন। তাই কোথাও না কোথাও কে বা কারা দেখেই ফেলতে পারে।

    এমন একটা সমস্যা তৈরি করলাম যার সমাধান বোধহয় নেই। তাই পালাচ্ছি এবার। অনুমতি না নিয়েই।

    • সুধীন দত্তর অনুবাদটা আমি পড়েছি। ঠিক ‘সনেট’ ভেবে ’73’ অনুবাদ করিনি। তবে আপনার কথাটা মনে রইলো।

    • আর Shakespearean sonnet rhyme scheme abab/ cdcd/efef/gg। আপনি যেটা quote করেছেন, সেটা: abab/cdcd.

      • অবশ্যই। ভুল করেছি। আপনি সুধীন দত্ত পড়েন নি এটা আমি কল্পনাতেও জায়গা দিই নি।

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

w

Connecting to %s